স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ভুলে বাড়তে পারে চীনা টিকার দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক : চীনের সাথে সিনোফার্মের করোনা টিকা কিনতে গোপনীয়তার চুক্তি করেছিলো বাংলাদেশ। যার মূল শর্তই ছিলো টিকার বিক্রয়মূল্য প্রকাশ করা যাবে না। বাংলাদেশ সেই শর্ত রাখতে না পারায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছে চীন। এই পরিস্থিতিতে প্রতি ডোজ টিকা ১০ ডলারে না পাওয়ার শঙ্কা দেখা দিয়েছে।

এদিকে এমন ভুল অনিচ্ছাকৃত বলে দুঃখ প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ। বিস্তারিত জানিয়ে চীনকে চিঠিও লিখেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। তবে, এখন পর্যন্ত এর কোনো উত্তর পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন জানান, চীনের রাষ্ট্রদূতের কাছে আমরা দুঃখ প্রকাশ করেছি।

কিন্তু এতে আমাদের অবস্থানটা খুব বাজে হয়েছে। আগামীতে প্রতি ডোজ টিকা ১০ ডলারে কিনতে পারবো না। তারা অন্য দেশে যে দামে টিকা বিক্রি করেছে এখন ওই দামেই আমাদের কিনতে হবে অর্থাৎ ডাবল/ ত্রিপল দাম পড়বে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা এ বি এম খুরশিদ আলম বলছেন, চীন এই টিকা শ্রীলঙ্কার কাছে ১৪ ডলার, ইন্দোনেশিয়ার কাছে ১৭ ডলার করে বিক্রি করছে। এখন ওইসব দেশ টাকা ফেরত চেয়ে চীনের ওপর চাপ দিচ্ছে। আমরা বলেছি এটা ইচ্ছা করে করিনি। এ বিষয়ে একটা চিঠিও দিয়েছি, সেটার উত্তর এখনো পায়নি বলে জানান স্বাস্থ্যের মহাপরিচালক।

উল্লেখ্য, গত ২৭ মে দেড় কোটি টিকা কেনার প্রস্তাব অনুমোদন দেয় সরকারি মন্ত্রিসভার ক্রয় সংক্রান্ত কমিটি। বৈঠক শেষে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব গণমাধ্যমকে জানান, প্রতি ডোজের দাম হবে ১০ ডলার।